ভোটের অধিকার কেড়ে নিয়ে সরকার সবচেয়ে বড় দুর্নীতি করেছে : মির্জা ফখরুল

Daily Nayadiganta


মানুষের ভোটের অধিকার কেড়ে নিয়ে সরকার সবচেয়ে বড় দুর্নীতি করেছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেছেন, আমাদের অধিকারের জন্য পাকিস্তানের বিরুদ্ধে লড়াই করেছিলাম, আজ স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী পালন করার সময় সেই একইরকম রাজনৈতিক পরিস্থিতি বিরাজ করছে। আজ নির্বাচন কমিশনের দুর্নীতি নিয়ে বিশিষ্টজনরা কথা বলেছেন, তারা সবচেয়ে বড় দুর্নীতি করেছেন মানুষের ভোটের অধিকার কেড়ে নিয়ে।

মির্জা ফখরুল বলেন, সিংহাসন টিকিয়ে রাখতে এই সরকার সংবিধান লঙ্ঘন করেছে, এর বিচার একদিন হবে। করোনার শুরু থেকে এখন ভ্যাকসিন পর্যন্ত তারা সবকিছু নিয়ে নিজেদের পকেট ভরার কাজ করেছে, মানুষের জীবন নিয়ে ছিনিমিনি করেছে। সবাইকে এক হয়ে আন্দোলন করে এই সরকারকে পদত্যাগে বাধ্য করতে হবে।

এসময় গণঅভ্যুত্থান দিবস উপলক্ষে নাগরিক ঐক্য আলোচনা সভা আয়োজন করায় তিনি নাগরিক ঐক্যকে ধন্যবাদ জানান।

নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্নার সভাপতিত্বে ও দলের সমন্বয়ক শহীদুল্লাহ কায়সারের সঞ্চালনায় এসময় আরো বক্তব্য রাখেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, সৈয়দ মুহাম্মদ ইব্রাহিম, বীর প্রতীক, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শওকত মাহমুদ, গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক কমরেড সাইফুল হক,মুক্তিযোদ্ধা দলের সাধারণ সম্পাদক সাদেক আহমেদ খান প্রমুখ।

এসময় বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক কমরেড সাইফুল হক বলেন, আজ যে দুর্নীতির শাসন চলছে তা থেকে জনগণের মুক্তির জন্য আমাদের সবাইকে একমত হয়ে পাশাপাশি থেকে আন্দোলন করতে হবে।

আলোচনা সভায় মুক্তিযোদ্ধা দলের সাধারণ সম্পাদক সাদেক আহমেদ খান বলেন, সরকারের জুলুম নির্যাতনের বিরুদ্ধে আমাদের একসাথে হতে হবে, আন্দোলন করতে হবে। বলতে দ্বিধা নেই, আমরা আন্দোলন করে আমাদের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে পারিনি। নাগরিক ঐক্য গণঅভ্যুত্থানের ডাক দিয়েছে, আমাদের সবাইকে এক হয়ে এই ডাকে সারা দিতে হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here