আ’লীগের সময় ছেলে গুম হবে কখনো ভাবতে পারিনি : যুবলীগ নেতার মা

Daily Nayadiganta


‘বিচারের দায়িত্ব কার? কে বিচার করবে ? বলে ছেলের ছবি বুকে জড়িয়ে কাঁদতে কাঁদতে বাকরুদ্ধ হয়ে পড়েন বাবুলের মা বদরুন্নেছা। ফেনীর সোনাগাজীর যুবলীগ নেতা সারওয়ার জাহান বাবুল নিখোঁজের আজ ৯ বছর পূর্ণ হলো।

তিনি সোনাগাজী উপজেলার চরছান্দিয়া ইউনিয়নের পাঁচ নম্বর ওয়ার্ডের ইস্রাফিল মিয়া ও বদরুন্নেছা দম্পতির ছেলে। বাবুল সোনাগাজী উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি প্রার্থী ছিলেন।

জানা গেছে, ২০১১ সালে ২৬ অক্টোবর দলীয় কোন্দলের কারণে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে অস্ত্রধারী চার থেকে পাঁচ ব্যক্তি তাকে তুলে নিয়ে যাওয়ার পর থেকে তিনি নিখোঁজ রয়েছেন।

নিখোঁজ বাবুলের মা বলেন, আওয়ামী লীগ সরকারের সময় আমার ছেলে গুম হয়ে যাবে সেটা কখনো ভাবতে পারিনি। আমার ছেলে যদি অপরাধ করে থাকে, তার বিচার করতে পারতো। কিন্তু সেটা না করে কেন গুম করে ফেলল?

সরোয়ার জাহান বাবুল ৯ ভাই-বোনের মধ্যে অষ্টম সন্তান। পরিবারের সবাই আওয়ামী লীগের রাজনীতির সাথে জড়িত। বাবুল সোনাগাজী উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি প্রার্থী ছিলেন। বাবুলের ভাই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহিম মানিক।

তিনি বলেন, দলীয় কোন্দলের কারণে মামলায় আগাম জামিন নিতে ২০১১ সালের ২৬ অক্টোবর তিনি ও বাবুল ঢাকা যান। রাতে অবস্থানের জন্য ফকিরাপুল এলাকায় হোটেল ‘আসর’-এ রুম ভাড়া নেন তারা। ওইদিন সন্ধ্যার একটু পর হোটেল থেকে নেমে নাস্তা করার জন্য দোকানে যাওয়ার পথে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে অস্ত্রধারী চার থেকে পাঁচজন বাবুলকে তুলে নিয়ে যায়।

এরপর তারা ঢাকা ও সোনাগাজী থানায় জিডি করেছেন বলে জানান। তিনি আরো বলেন, সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন দফতরে যোগাযোগ করেছি। কোনো লাভ হয়নি। আজ ৯ বছর অতিবাহিত হলেও ভাইকে আজও খুঁজে পাইনি। জীবিত হোক মৃত হোক আমি ভাইকে ফেরত চাই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here