ভারতের বাহাদুরী শুধু বলিউড সিনেমায়, নিজেদের টিভিতে আর বাংলাদেশের সীমান্তে : আসিফ নজরুল

ভারতের বাহাদুরী শুধু বলিউড সিনেমায়, নিজেদের টিভিতে আর বাংলাদেশের সীমান্তে : আসিফ নজরুল

ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০১৯
ড. আসিফ নজরুল। ফাইল ছবি

ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে চলমান রাজনৈতিক উত্তেজনা নিয়ে মূখ খুলেছেন ড. আসিফ নজরুল। নিজের ফেসবুক টাইমলাইনে তিনি লেখেনম ভারতের বাহাদুরী শুধু বলিউড সিনেমায়, নিজেদের টিভিতে আর বাংলাদেশের সীমান্তে।

এছাড়া আজকের নির্বাচন নিয়ে তিনি লিখেছেন, “পত্রিকার কিছু প্রতিবেদন আর ছবি দেখে মনে হলো মেয়র নির্বাচনে বহু কেন্দ্রে পড়েছে এক/দুই শতাংশ-এর মতো। এখন দেখা যাক নির্বাচন কমিশন এটাকে কতো শতাংশ বাড়িয়ে দেখায়!”

ভারতের সেনা ছাউনি লক্ষ্য করে পাকিস্তানের ফের হামলা

ভারত-পাকিস্তান সীমান্তে আবারো লড়াই শুরু হয়েছে। ভারত অধিকৃত জম্মু কাশ্মিরের পুঞ্চ জেলার সীমান্তে লাইন অব কন্ট্রোলের (এলওসি) ওপর এ লড়াই চলছে।

ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে এ তথ্য জানিয়েছে গাল্ফ নিউজ। ভারত কর্তৃপক্ষ জানায়, পাকিস্তান এলওসি বরাবর ভারতের সেনা ছাউনি লক্ষ্য করে এ হামলা চালায়।

ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র লেফটেন্যান্ট কর্নেল দেবেন্দার আনন্দ এ ঘটনার জন্য পাকিস্তান পক্ষকে অভিযুক্ত করে জানান, বৃহস্পতিবার সকাল ছয়টা নাগাদ ভারতের পুঞ্চ সেক্টরের কৃষ্ণা ঘাঁটি এলাকায় পাকিস্তান ব্যাপকাকারে মর্টার হামলা চালায়।

এ সময় তারা বিভিন্ন ছোট অস্ত্র থেকেও গুলি করতে থাকে। পরে ভারতীয় বাহিনীও এর জবাব দিতে থাকে। প্রায় এক ঘণ্টা ধরে এ গোলাগুলি চলতে থাকে। তবে কোনো পক্ষ থেকেই ক্ষয়ক্ষতির কোনো বিবরণ জানা যায়নি।

এ ঘটনায় এ এলাকার পাঁচ কিলোমিটারের মধ্যে থাকা রাজৌরি, পুঞ্চ ও সাম্বা জেলার সমস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছুটি ঘোষণা করেছে।

ভারতীয় পাইলটকে ফেরত দিতে যে শর্ত দিল পাকিস্তান

ভারতীয় বিমানবাহিনীর উইং কম্যান্ডার অভিনন্দন বর্তমান এখন পাকিস্তানের কব্জায়। তাঁকে অক্ষত অবস্থায় দেশে ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য ইতিমধ্যেই পাকিস্তানের উপর চাপ সৃষ্টি করা শুরু করেছে ভারত। ভারতের চাপের মুখে কিছুটা সুর নরম পাকিস্তানের। পাকিস্তানী পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয় সূত্রের খবর- অভিনন্দন বর্তমানকে ফিরিয়ে দেওয়া নিয়ে ভাবনা চিন্তা করছে পাকিস্তান। তবে তার জন্য ভারতকে শর্ত আরোপ করা হতে পারে।

ভারতীয় এক সংবাদ মাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, ইতিমধ্যেই নয়াদিল্লির তরফে পাকিস্তানকে হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে, প্রয়োজনে আত্মরক্ষার জন্য যে কোনও পদক্ষেপ করতে পারে ভারত। এছাড়াও যেভাবে ভারতীয় বিমানবাহিনীর পাইলট অভিনন্দন বর্তমানের ছবি এবং ভিডিও সংবাদমাধ্যমে প্রকাশ করা হচ্ছে তারও তীব্র নিন্দা করেছে নয়াদিল্লি। পাকিস্তানকে সাফ জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, জেনেভা কনভেনশনের চুক্তি অনুসারে ভারতীয় জওয়ানের গায়ে একটা আঁচড়ও কাটার অধিকার নেই পাকিস্তানের।

ভারতের আশা, অভিনন্দনকে সুস্থ এবং অক্ষত অবস্থায় ফিরিয়ে দেবে পাকিস্তান। আর যদি তা নয়, তার ফল যে ভাল হবে না, তাও বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে।

ভারতের এই কঠোর অবস্থানের পরই সুর নরম করা শুরু করেছে ইসলামাবাদ। পাকিস্তানী পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয় সূত্রের খবর, ভারতীয় উইং কম্যান্ডারকে ফিরিয়ে দেওয়া হবে। তবে, সেটা একমাত্র সীমান্তে উত্তেজনা কমলেই। দু’দেশের মধ্যে যে যুদ্ধকালীন পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে, তা প্রশমিত হওয়ার পরই ফিরিয়ে দেওয়া হবে অভিনন্দনকে।

পাকিস্তানের শর্ত, শান্তি ফেরাতে ভারতকেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিতে হবে। পাকিস্তানের এক সংবাদ মাধ্যমকে একথা জানিয়েছেন সেদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী। পাকিস্তান ভারতের সঙ্গে আলোচনা চায় বলেই দাবি পাক বিদেশমন্ত্রীর। তিনি জানিয়েছেন, ভারতীয় পাইলট সুরক্ষিত এবং সুস্থ আছেন। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে শান্তি আলোচনা চান পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। মোদির সঙ্গে ফোনে কথা বলতেও রাজি ইমরান।

এদিকে অভিনন্দনকে দ্রুত অক্ষত অবস্থায় দেশে ফেরানোর দাবিতে সরব গোটা দেশ। ইতিমধ্যেই ২১টি বিরোধী দল অভিনন্দনকে যে কোনওভাবে দ্রুত অক্ষত অবস্থায় দেশে ফেরানোর দাবি জানিয়েছে।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি খোদ জানিয়েছেন গোটা দেশ অভিনন্দনের পাশে রয়েছে। পাকিস্তান অভিনন্দনকে শর্তসাপেক্ষে ফেরাতে রাজি হলেও, তাঁকে যুদ্ধবন্দির তকমা দেওয়া নিয়ে টালবাহানা করছে। অভিনন্দনকে আদৌ যুদ্ধবন্দির তকমা দেওয়া হবে কিনা, তা নিয়ে আগামী ২-১ দিনের মধ্যে সিদ্ধান্ত নেবে পাকিস্তানী পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়, এমনটাই সূত্রের খবর।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here